চলচ্চিত্র: অন্তর্যাত্রা
পরিচালক: তারেক মাসুদ, ক্যাথরিন মাসুদ
কলাকুশলী: সারা জাকের, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, আব্দুল মমিন চৌধুরী, নাসরিন করিম, রোকেয়া প্রাচী, হারল্দ রশিদ, রিফাকাত রশিদ তিয়াস
দেশ: বাংলাদেশ
সাল: ২০০৫ (যুক্তরাজ্য), ২০০৬ (বাংলাদেশ)
রেটিং: ৮.৫/১
গল্প সংক্ষেপ
বাবার সাথে ছাড়াছাড়ি’র পর সোহেল তার মা শিরিনের সাথে লন্ডনে বসবাস করে। তারা সেখানকার নাগরিক। একদিন খবর আসে সোহেলের বাবা মারা গেছেন। কৈশোর পার করা সোহেল মায়ের সাথে বাংলাদেশে আসে। দেশ সম্পর্কে, নিজের আত্মীয় স্বজন সম্পর্কে সে কিছুই জানে না। মা তাকে সবকিছু থেকে আড়াল করে রেখেছিলো। সোহেলের পরিচয় হয় বাবার দ্বিতীয় স্ত্রী সালমা এবং তাদের মেয়ে রিনির সাথে। দুই ভাই-বোন সহজে মিশে যায়। মাকে নিয়ে সিলেটে বাবার কুলখানিতে হাজির হয়। পরিচয় হয় দাদা, ফুপু, ফুপা আর মৃত বাবার সাথে। সে বাবাকে নতুন করে অনুভব করে। অনুভব করে জন্মভূমিকে। গল্পের শেষে সে বুঝতে পারে বাবার মৃত্যু শুধু তাকে নয় মা’কেও বাবার কাছাকাছি এনে দিয়েছে, তাকে এখানে বারবার ফিরে আসতে হবে।
মূল কলাকুশলী
পরিচালক তারেক মাসুদ, ক্যাথরিন মাসুদ
চিত্রগ্রাহক গায়েতেইন রওসিয়াউ
অভিনয়শিল্পী
সারা জাকের –
জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় –
আব্দুল মমিন চৌধুরী –
নাসরিন করিম –
রোকেয়া প্রাচী –
হারল্দ রশিদ –
রিফাকাত রশিদ তিয়াস –
সম্মাননা
সিনেফ্যান – এশিয়ান এবং আরব চলচ্চিত্র উৎসব ।
বিজয়ী এশিয়ান এবং আরব প্রতিযোগিতার বিশেষ উল্লেখ পুরস্কার – তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ
ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অব বাংলাদেশ
বিজয়ী শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক – তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ
অন্যান্য তথ্যাবলী
মুক্তি ২০০৫ (যুক্তরাজ্য), ২০০৬ (বাংলাদেশ)
জেনারেল: রিয়ালিটি ফিকশন
দেশ: বাংলাদেশ
সময়কাল: ৮৬ মিনিট।
ফরম্যাট: ডিজিটাল
রং: রঙিন
ইংরেজী নাম : Life in Rainbow
দেশ: বাংলাদেশ
ভাষা: বাংলা ,ইংরেজি