নাম: সোফিয়া কারমিনা কপোলা
জন্ম: ১৪ মে ১৯৭১
জন্মস্থান: নিই ইয়র্ক সিটি, নিউ ইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্র

 

মিসেস কপোলা, মাইকেল ডগলাস একসময় বলেছিলেন তাঁর ক্যারিয়ারের প্রথম ১৫ বছরের সাফল্য তাঁর বাবার জন্য। আপনি কি ছবি বানাতে আপনার বাবার পথ অনুসরণ করেন?

আমি মনে করি মেয়ে হিসেবে আমি তেমন চাপ অনুভব করি না। মেয়ে হিসেবে কারণ আপনার কাছ থেকে খুব কমই আশা করা হয়। আমি সব মিলিয়ে চাপ অনুভব করিনি এবং আমার নিজেকে আমার মতোই গড়ে নিয়েছি। অবশ্যই আমি বাবার জন্য গর্বিত যিনি আমার পূর্বসুরী। কিন্তু আমার কাজ করার নিজস্ব ধরণ আছে। যা একান্তই আমার একান্ত নিজস্ব ধারা।

আপনার পিতা কখনো আপনাকে শিখিয়েছেন?
না। বাবা ছোটবেলা থেকেই আমার সঙ্গে ছবি বানানো ও চিত্রনাট্য লেখা নিয়ে আলোচনা করতেন। আমার কাছে মনে হয় আমাকে শেখানোর থেকে তাঁর কাছে এটাই বেশি আগ্রহের ছিল।

কীভাবে আপনি ছবি বানানোর নিজস্ব ধারা খুঁজে পেলেন?

সময় লেগেছে। আমি শুধু ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করেছি। আমি বাড়ি থেকে দূরে বের হয়ে যেতাম। আমার কলেজে যেতাম। এমনকি আমি জাপানের অংশিদারিত্বে একটি কাপড়ের ব্যবসাও শুরু করেছিলাম। কিন্তু আমি একসময় আমার প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য বানিয়ে ফেললাম। এবং দ্য ভার্জিন সুইসাইড খোঁজাটা ছিল আমার টার্নিং পয়েন্ট আসলে। আমি বইটিকে ভালোবেসে ফেলি।
আপনার বাবা আপনাকে গডফাদার ৩ সিনেমায় উইনোনা রাইডারের জায়াগায় নিয়ে নিলেন। এটা কি খুব খারাপ অভিজ্ঞতা ছিল?
এটা ছিল খুব কঠিন কাজ। কারণ তখন আমার বয়স ১৮ বছর। জানো তো, এই সময়ে তুমি তোমার বাবা-মায়ের কথাই শুনতে চাও। বাবা আমায় পরিচালনা করছেন সুতরাং এটা ছিল খুবই অদ্ভুত কাজ কারণ আমি স্বভাবগত অভিনেত্রী ছিলাম না। কিন্তু আমি শুধু করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু লোকেরা যেমনটি চায় তেমনটি ঠিক হচ্ছিলো না। আমি দ্য পডফাদার সিনেমার মধ্য দিয়েই বেড়ে উঠেছি তাই এটির সঙ্গে পরিচিত। কিন্তু আমার কাছে এটি ধ্রুপদি মনে হয়নি। এটা ছিল আমার শেখার একটি অভিজ্ঞতা। যেহেতু আমি একজন অভিনেত্রী হতে চাইনি তাই মানুষের আমাকে না পছন্দ করাটা আমাকে ভোগায়নি। কিন্তু সবকিছু মিলে এটা ছিল ভালো এক প্রকার অভিজ্ঞতা যা তোমাকে আরও বেশি শক্তিশালী করে তুলবে।

এত বড় একটি ছবির সঙ্গে ক্যারিয়ার শুরু করেও ফিল্মে ক্যারিয়ার করার চিন্তা কাজ করেনি?

আমি আগেও কখনোই অভিনয়ে ক্যারিয়ার গড়তে চাইনি। তাছাড়া ইতিমধ্যে আমি আর্ট স্কুলে যাওয়ার পরিকল্পনাও করেছিলাম। কিন্তু সেই অভিজ্ঞাতা অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে কাজ করতে আমাকে সাহায্য করে।

এটা কি সত্যি? যে বাবা আপনার জন্ম নেওয়ার ব্যাপারটি ভিডিও করেছিলেন?

ঘ্যা। বাবা আমার জন্মগ্রহণকে ক্যামেরা বন্দী করেন। আজকে এ কাজটি অনেক লোকই করছে। কিন্তু বাবা যখন করেছে তখন এটি খুবই অপ্রচলিত ছিল। ভাগ্য ভালো যে, আমি আমার জন্ম নেওয়ার ব্যাপারটি দেখেছি। এটা আলাদা একটি কায়দা করে ভিডিও করা হয়েছিল। এটা আসলেই মজা করে করেছিল। যখন ডাক্তার বলল, আমি একটি মেয়ে, বাবা ভিডিও করা বন্ধ করে দেন। কারণ তিনি আশ্চর্য হয়ে যান। ছবি বানানোটা আসলে আমাদের পারিবারিক ব্যবসা।
 
এই সময়ে পরিবারের সঙ্গে বেড়ে ওঠাটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ?
খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই পরিবারের সঙ্গে বড় হচ্ছি কারণ, পরিবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা আমার বাবা কাছ থেকে ইতালিয়ান ঐতিহ্য হতে পারে।

এটা স্বাভাবিক যে, আপনার ভাইই যে আপনার ছবির প্রযোজক হবে, তখন?

আমি ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করতে ভালোবসি। ও অবশ্য আমাদের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি দেখছে। আমরা খুবই সৌভাগ্যবান যে, আমরা সহোদর হওয়া সত্বেও একসঙ্গে কাজ করতে পারি। এবং এটা দারুণ একটা ব্যাপার যে, সেটে তোমার বড় ভাই উপস্থিত থাকেন।

ভাই বোনের মধ্যে যে সম্পর্কটা থাকে তাকি তোমাদের দুজনের মধ্যে আছে?
হ্যা। ও জানে আমাকে। সুতরাং আমার হয়ে ও সিদ্ধান্তগুলো নিতে পারে। কারণ ও জানে আমি কী পছন্দ করি।

পরিচালকেরা বলেন, ছবি নির্মাণ শিশু লালন পালনের মতো। আপনি কি একমত?

আমি মনে করি, প্রত্যেক সৃজনশীল কাজের সঙ্গে এর আপনি একটা যোগসূত্র ধরতে পারেন। তবে একটির সঙ্গে অন্যটির পার্থক্য করাটা কঠিন।

আপনি পরিচালক হিসেবে কঠোর? না মা হিসেবে?

আমি দুটো আবস্থায়ই কঠোর। পরিচালকেরা সাধারণত উদ্ভট পরিবেশকে নিয়ন্ত্রণ কওে এবং তাদেও মতো কওে কাজ গুলো করায় কিন্তু আমার ব্যক্তিত্বেও কিন্তু কোনো পরিবর্তন হয় না। আমি আমার বোধিকে অনুসরণ করি এবং যতটা পারা যায় এর কাছাকাছি যাওয়ার চেষ্টা করি।