চলচ্চিত্র: ১৯১৭
পরিচালক: স্যাম মেন্ডেস
কলাকুশলী: জর্জ ম্যাকি, ডিন চার্লস চ্যাপম্যান, মার্ক স্ট্রং, এন্ড্রু স্কট, রিচার্ড ম্যাডেন কলিন ফার্থ।
দেশ: আমেরিকা
সাল: ২০১৯
রেটিং: ৮/১০

গল্প সংক্ষেপ
প্রথম বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন সময় ৬ এপ্রিল, ১৯১৭। শত্রু অঞ্চলে যুদ্ধ করার জন্য একটি আমেরিকান সৈনিকের দল জড়ো হয়। একটা সময় তাদের অন্য একটি দল জানতে পারে যে, শত্রু অঞ্চলে তাদের যে দলটি যুদ্ধটি করতে যাচ্ছে তাঁরা আসলে জার্মানি সেনাদের পাতা এক ফাঁদে পড়তে যাচ্ছে। তখন দুজন সৈন্যকে আদেশ দেওয়া হয় একটি বার্তা শত্রু অঞ্চল পার হয়ে সেই দলকে পৌঁছে দেওয়ার জন্য। বার্তাটি না পৌঁছাতে পারলে ১৬০০ জনের সেই দলের সবাই হয়তো মারা যাবে। সেই বার্তা থেকেই সিনেমার নাটকীয়তার শুরু। দুই সৈনিক কি, তাদের জীবন বাজি রেখে শত্রু অঞ্চল পার হয়ে বার্তাটি ওই আমেরিকান সৈনিকদের পৌঁছাতে পারবে? প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ওপর দুই সৈনিকের টিকে থাকার গল্প নিয়ে ছবি ১৯১৭।

মূল কলাকুশলী
পরিচালক: স্যাম মেন্ডেস
চিত্রগ্রাহক: রজার ডিকিন্স
অভিনয়শিল্পী: জর্জ ম্যাকি, ডিন-চার্লস চ্যাপম্যান, মার্ক স্ট্রং, অ্যান্ড্রু স্কট, রিচার্ড ম্যাডেন, কলিন ফার্থ, বেনেডিক্ট ক্যাম্বারব্যাচ।

অন্যান্য শিল্পী
ড্যানিয়েল মাইস, পিপ কার্টার, অ্যান্ডি অ্যাপোলো, পল টিন্টো, বিলি পোস্টথওয়াইট, গ্যাব্রিয়েল অকিউডিক, অ্যান্ড্রু স্কট, স্পাইক লেইটন, রর্বার্ট ম্যাসের, গ্যারেন হোওয়েল।

প্রযোজক
স্যাম মেন্ডেস
পিপা হ্যারিস
জেইন অ্যান টিনগ্রেন
কলাম ম্যাকডুগাল
ব্রায়ান ওলিভার

রচনা
স্যাম মেন্ডেস
ক্রিস্টি উইলসন-কেইর্নস

সংগীত
থমাস নিউম্যান

সম্পাদনা
লি স্মিথ

প্রযোজনা
ড্রিম ওয়ার্কস পিকচার্স
রেলিয়েন্স এন্টারটেইনমেন্ট
নিউ রিপাবলিক পিকচার্স
মোগাম্বো
নিল স্ট্রিট প্রডাকশন
অ্যাম্বলিন পার্টনার্স

পরিবেশক
এন্টারটেইনমেন্ট ওয়ান (যুক্তরাজ্য)
ইউনিভার্সেল পিকচার্স (যুক্তরাষ্ট্র)

মুক্তি
২০১৯

ভাষা
ইংরেজি

পুরস্কার
অস্কার: ১০টি শাখায় মনোনয়ন। চিত্রগ্রহণ, সাউন্ড মিক্সিং ও ভিজ্যুয়াল ইফেক্টে অস্কার পায়।
ব্রিটিশ ফিল্ম অ্যাকাডেমি: ৯টি শাখায় মনোনয়ন। বেস্ট ফিল্ম, আউটস্ট্যান্ডিং ব্রিটিশ ফিল্ম, বেস্ট ডিরেক্টর, বেস্ট সিনেমাটোগ্রাফি, বেস্ট প্রডাকশন ডিজাইন, বেস্ট সাউন্ড, বেস্ট স্পেশাল ভিজ্যুয়াল ইফেক্টস পুরস্কার পায়।
ক্রিটিকস চয়েস অ্যাওয়ার্ডস: সের পরিচালক, সেরা চিত্রগ্রহণ, সেরা সম্পাদনা পুরস্কার জেতে।
গোল্ডেন গ্লোব: সেরা ছবি, সেরা পরিচালক পুরস্কার জেতে।

এ ছাড়া আরও বিশ্বের নামকরা চলচ্চিত্র উতসবে মনোনীত হয় ও পুরস্কার জেতে ছবিটি।