চলচ্চিত্র: দহন
পরিচালক: শেখ নিয়ামত আলী
কলাকুশলী: হুমায়ন ফরীদি , ববিতা ,বুলবুল আহমেদ , শ্যামলী আহমেদ , আসাদুজ্জামান নূর, প্রবীর মিত্র , দৌলি আনোয়ার সহ আরো অনেকে
দেশ: বাংলাদেশ
সাল: ১৯৮৫
গল্প সংক্ষেপ
ব্যক্তিগত প্রেমের চেয়ে সমষ্টিগত প্রেমই গল্পে প্রাধান্য পেয়েছে। গল্পে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় স্হান পেয়েছে যেমন- বাজেট নিয়ে আলোচনা, মানুষ নিয়ে রাজনীতি, শেরে বাংলা নগরে প্রেমাভিসার প্রভৃতি। গল্পে অর্থনৈতিক সামাজিক পুরানো পদ্ধতি ভাঙার সংগ্রামী প্রচেষ্টাকে তুলে ধরেছে, খুজেছে মুক্তির পথ। ফ্যাক্টস, ফিকশন, সিম্বল, হিওমার ব্যবহার করে কাহিনীতে সৃষ্টি করেছে একটি দলিলচিত্র।
মূল কলাকুশলী
পরিচালক   : শেখ নিয়ামত আলী
প্রযোজক  : শেখ নিয়ামত আলী প্রডাকশন্স
রচয়িতা  : শেখ নিয়ামত আলী
সুরকার  : আমানুল হক
চিত্রগ্রাহক : আনোয়ার হোসেন
সম্পাদক  : সাইদুল আনাম টুটুল
পরিবেশক : নাসকো মুভিজ
অভিনয়শিল্পী
বুলবুল আহমেদ
ববিতা
হুমায়ুন ফরীদি
শর্মিলী আহমেদ
প্রবীর মিত্র
ডলি আনোয়ার
রওশন জামিল
আবুল খায়ের
সাইফুদ্দিন
আসাদুজ্জামান নূর
সৈয়দ আহসান আলী
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
শ্রেষ্ঠ পরিচালক : শেখ নিয়ামত আলী
শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার : শেখ নিয়ামত আলী
শ্রেষ্ঠ পার্শ চরিত্র অভিনেতা : আবুল খায়ের
বাচসাস পুরস্কার
শ্রেষ্ঠ পরিচালক  : শেখ নিয়ামত আলী
শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার : শেখ নিয়ামত আলী
শ্রেষ্ঠ রচয়িতা : শেখ নিয়ামত আলী
শ্রেষ্ঠ অভিনেতা : হুমায়ুন ফরীদি
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী : ববিতা
শ্রেষ্ঠ পার্শ চরিত্র অভিনেতা : আসাদুজ্জামান নূর
শ্রেষ্ঠ পার্শ চরিত্র অভিনেত্রী : শর্মিলী আহমেদ
শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক : আনামুল হক
শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক : মাসুক হেলাল
শ্রেষ্ঠ চিত্ত স্মপাদক : সাইদুল আনাম টুটুল
মুক্তি
১৯ই ডিসেম্বর ১৯৮৫ সাল